২৭শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম :
চৌদ্দগ্রাম থানায় পুলিশের কল্যাণ সভা অনুষ্ঠিত চৌদ্দগ্রামে সাবেক রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক মুজিবের পরিবার ও কনকাপৈত ইউনিয়ন আ”লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ডা,সরোয়ারদী মেম্বারের রোগ মুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত, কুমিল্লা চৌদ্দগ্রাম থানা পুলিশের অভিযানে ফেনসিডিল, গাঁজাসহ ৪জন আটক চৌদ্দগ্রামে বিলকিছ আলম পাঠাগার পরিদর্শন করলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস,এম,মুঞ্জুরুল হক কুমিল্লা চৌদ্দগ্রাম নিউ বিসমিল্লাহ সুইর্টস এর শুভ উদ্ধোধন চৌদ্দগ্রামে ভ্রাম্যমান আদালতে বিভিন্ন দোকানে ৮০ হাজার টাকা জরিমানা চাঞ্চল্যকর মামলায় পলাতক আসামী স্ত্রী রোকেয়া আক্তার শিউলী কে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব-৭, গুনবতীর দুবাই প্রবাসীকে হত্যা করে সন্তান নিয়ে রাতের আঁধারে উধাও স্ত্রী চৌদ্দগ্রামে হাজী সিদ্দিকুর রহমানের ইন্তেকাল, দাফন সম্পন্ন চৌদ্দগ্রামে মিডিয়া ব্যাক্তিত্ব শুভাকাক্ষী নিয়ে নৌকা ভ্রমণ ও মিলন মেলা ২০২১ অনুষ্ঠিত কুমিল্লায় থানাতে কর্মরত অবস্থায় পুলিশ সদস্যের মৃত্যু !
  • প্রচ্ছদ
  • অন্যান্য >> টপ নিউজ
  • জমে উঠেছে চাঁদপুর পৌর নির্বাচন :
  • জমে উঠেছে চাঁদপুর পৌর নির্বাচন :

    আগামী ১০ অক্টোবর চাঁদপুর পৌরসভা নির্বাচনকে ঘিরে প্রার্থীরাসহ তাদের কর্মী সমর্থকদের নির্ঘুম দিনরাত কাটছে। যতই দিন ঘনিয়ে আসছে ততই যেন প্রার্থী ও সমর্থকদের ব্যস্ততার কমতি নেই। রোদ-বৃষ্টিকে উপেক্ষা করেই চলছে নির্বাচনী প্রচারনা ও কর্মী সভা। নির্বাচনী প্রচারণার শেষ দিন আগামীকাল। তাই প্রতিদিনের মতই সকাল থেকেই যেন ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে প্রতীক সম্মিলিত মার্কা দিয়ে ভোট ও দোয়া কামনা করছেন। দীর্ঘদিন পর ভোট হওয়ায় ভোটারদের মধ্যেও বিরাজ করছে উৎসবের আমেজ।

    প্রতীক বরাদ্দর পর বিভিন্ন মাধ্যমে নিজেদের গুনকীর্তন তুলে ধরছেন প্রার্থী ও তাদের কর্মী সমর্থকরা। নির্বাচনী এলাকায় প্রতিটি পাড়া মহল্লায় ও চা ষ্টলে জমে উঠেছে নির্বাচনী আলোচনা।

    চাঁদপুর পৌরনির্বাচনে এবারই প্রথম ইভিএম ব্যবহার হওয়ায় ভোটারদের মাঝে কৌতুহল বিরাজ করছে। এই নির্বাচনে মেয়র পদে তিনজন, কাউন্সিলর পদে ৫০ জন এবং মহিলা কাউন্সিলর পদে ১৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। পুরো চাঁদপুর পৌর এলাকায় অলি-গলি ছেয়ে গেছে প্রার্থীদের পোস্টার ও ব্যানারে। আর মাত্র একদিন পরেই শেষ হচ্ছে প্রচার-প্রচারণা। আর তাই শেষ মুহূর্তে ভোটারদের কাছে দৌড়ঝাঁপ আরও বাড়িয়ে দিয়েছেন প্রার্থীরা। ভোটকে কেন্দ্র করে পুরো এলাকা যেন উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে।এ নির্বাচনের মাধ্যমে চাঁদপুর পৌরবাসী পাচ্ছেন এক নতুন অভিভাবক। নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও ইসলামী আন্দোলনের মনোনীত প্রার্থী অংশ নিয়েছেন।

    আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়রপ্রার্থী অ্যাডভোকেট জিল্লুর রহমান জুয়েল ব্যাপক গণসংযোগ করে বেড়াচ্ছেন। তিনি জানান, মেয়র নির্বাচিত হলে জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং আমাদের মাননীয় সংসদ সদস্য শিক্ষামন্ত্রী আলহাজ্ব ডা. দীপু মনির মাধ্যমে চাঁদপুর পৌর এলাকাকে একটি পর্যটন নগরী হিসেবে গড়ে তুলবো।

    তিনি বলেন, আমি যেটুকু করতে পারবো সেটুকুরই প্রতিশ্রুতি দিবো। যা করতে পারবো না, সেরকম ওয়াদা দেবো না। তিনি চাঁদপুর পৌরসভার বর্জ্য ব্যবস্থাপনা এবং যানজট নিরসনসহ মৌলিক সমস্যাগুলো সমাধানের মাধ্যমে আধুনিক পৌরসভা গঠনের প্রতিশ্রুতি দেন। আপনাদের সন্তান হিসেবে আমাকে বিজয়ী করতে হলে আগামী ১০ অক্টোবর আপনারা ভোট কেন্দ্রে যাবেন, নৌকায় ভোট দিবেন। আপনারা ভোট কেন্দ্রে না গেলে আমি বিজয়ী হতে পারবো না। আমি এই প্রথম নির্বাচন করছি। আমাকে নির্বাচিত করতে হলে এই একদিন আপনারা কষ্ট করবেন। নির্বাচিত হলে আমি কোন দলের মেয়র হবো না। সবার মেয়র হবো।

    অন্যদিকে সমানভাবে প্রতিটি ঘরে ঘরে গণসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন বিএনপি মনোনীত মেয়রপ্রার্থী মোঃ আক্তার হোসেন মাঝি। তিনি তার নির্বাচনী ইশতেহারে বলেন, আমি দুর্নীতি করবো না এবং কাউকে দুর্নীতি করতে দিবো না। দলমত নির্বিশেষে সবার প্রতি সমান দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে কাজ করবো। চাঁদপুর পৌরসভার পথে ঘাটে কোন রাস্তায় কোনো পানি জমতে দিবো না। পূর্ণ জলাবদ্ধতা নিরসন করবো। শহরের যানজট নিরসনের লক্ষে দ্রুত গতিতে পৌরসভার পূর্বমূখী ৩টি রাস্তা সংস্কারসহ প্রয়োজনে আরো নতুন রাস্তা নির্মান করা হবে। তিনি বলেন, সরকারী দল দিশেহারা হয়ে গেছে। তাই সবাইকে সতর্ক ও সজাগ থাকতে হবে। যদিও প্রত্যেক ভোটারকে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ভোট প্রধানের আহ্বান জানান তিনি।

    এছাড়াও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত মেয়র প্রার্থী মামুনুর রশিদ বেলাল বলেছেন, শহরকে বসবাসোপযোগী শান্তির শহরে পরিণত করতে এর জন্য প্রয়োজন আমূল পরিবর্তনের। দরকার ব্যাপক সংস্কারের। প্রয়োজন সমন্বিত উদ্যোগের। প্রয়োজন সৎ, যোগ্য ও আল্লাহভীরু নেতৃত্বের। তাই আলেম-উলামা, পীর-মাশায়েখ, শিক্ষাবিদ, আইনজীবী, বিভিন্ন পেশাজীবী ও শ্রমজীবী মানুষের সমর্থিত প্রার্থী হাতপাখা মার্কায় পৌরবাসীর ভোট প্রার্থনা করেছেন। একইভাবে নিজ নিজ প্রতীকে ভোট প্রার্থনা করে পাড়া-মহল্লা চষে বেড়াচ্ছেন কাউন্সিলর প্রার্থীরাও। সবাই নিজ নিজ প্রতীকে ভোট দিতে ভোটারদের কাছে অনুরোধ জানান।

    FacebookTwitterShare

    আরও পড়ুন

    error: Content is protected !!