২৯শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম :
চৌদ্দগ্রামে বাতিসা প্রাইম ইলেকট্রিক এন্ড ইলেকট্রনিক এর শুভ উদ্ধোধন চৌদ্দগ্রামে ২নং উজিরপুর ইউনিয়ন এর চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ( সাবেক সফল চেয়ারম্যান )মনোনয়ন জমা দিলেন কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামের ১২টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী কুমিল্লায় দুর্বৃত্তে গুলিতে কাউন্সিলর নিহত ২, গুলিবিদ্ধ ৫ কুমিল্লা (ইপিজেড)একটি কারখানার স্টিলের ছাদ ধসে পড়ে একজন নিহত ও ৩ জন আহত বাতিসা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ নেতা কাজী ফরহাদের মনোনয়নপত্র সংগ্রহল চৌদ্দগ্রাম ৪০কেজি গাঁজা সহ গ্রেফতার১ উজিরপুর ইউনিয়ন নৌকার মাঝি প্রভাষক নায়িমুর রহমান মজুমদার মাছুম মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন করোনায় আরও ৫ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ২৪৪ চৌদ্দগ্রামে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন
  • প্রচ্ছদ
  • আইন আদালত >> আন্তর্জাতিক >> প্রবাস
  • জাল ভিসাসহ এক বাংলাদেশি আটক মালয়েশিয়ায়
  • জাল ভিসাসহ এক বাংলাদেশি আটক মালয়েশিয়ায়

    মালয়েশিয়া ইমিগ্রেশন বিভাগের অভিযানে একটি জাল টেম্পোরারি ওয়ার্ক ভিজিট পাসসহ (পিএলকেএস) এক বাংলাদেশি কম্পিউটার ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে। এমনকি পুলিশ তার ওয়ার্ক পারমিটটি ইমিগ্রেশনের সিস্টেম হ্যাক করে ভিসা নেওয়া হয়েছে বলেও সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

    শুক্রবার (৫ নভেম্বর) দুপুরে দেশটির ইমিগ্রেশনের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে বিবৃতিতে এ তথ্য জানান অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক দাতুক খায়রুল জাজাইমি দাউদ।

    বিবৃতিতে বলা হয়— ৩ নভেম্বর রাজধানীর কুয়ালালামপুরের একটি বিলাসবহুল কন্ডোমোনিয়াম থেকে স্পেশাল ডিভিশনের একটি টিম অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করেছে। তবে তদন্তের স্বার্থে ৩০ বছর বয়সী বাংলাদেশি যুবকের নাম-ঠিকানা প্রকাশ করা হয়নি। এ সময় তার মালিকানাধীন কম্পিউটার সামগ্রীর দোকান থেকে তাকে আটক করা হয়।

    এ কাজে সহযোগিতার জন্য ৪৪ বছর বয়সী তার ইন্দোনেশিয়ান স্ত্রীকেও আটক করা হয়েছে। তার স্ত্রীর কাছ থেকে মালয়েশিয়ান ১ লাখ ৬২ হাজার ৭৭ রিঙ্গিত উদ্ধার করা হয়েছে; যা বাংলাদেশি টাকায় ৩২ লাখেরও বেশি।

    এদিকে পুলিশের ধারণা সিস্টেম হ্যাক করে জালিয়াতির মাধ্যমে তাকে পারমিট দিয়েছে অন্য একটি প্রতারক চক্র; যা ওই বাংলাদেশি যুবক ব্যবহার করছে। বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, তিনি পাকিস্তানিদের কাছে “আলী” নামে এবং বাংলাদেশিদের কাছে “জুয়েল মুন্সী” নামে পরিচয় দিতেন।

    অভিবাসন আইন ১৫/৬৩ (অ্যাক্ট ১৫৫) এর অধীনে তাদের উভয়কেই অভিবাসন আইন ১৯৫৯/৬৩ এর ধারা ৫১(৫) (বি) ধারায় গ্রেফতার করা হয়েছে। পরবর্তী পদক্ষেপের জন্য তাদের ইমিগ্রেশন ডিপোতে পাঠানো হয়েছে।